রাজনীতি

রাজশাহী-বরিশালে নৌকার জয়, সিলেটে জটিলতা

৩ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে রাজশাহী ও বরিশালে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। সিলেটে বিএনপির প্রার্থী ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন।

তবে সেখানে বিএনপির প্রার্থী এগিয়ে থাকলেও স্থগিত ২টি কেন্দ্রে ভোটের সংখ্যা ৪ হাজার ৭৮৭ অর্থাৎ ব্যবধানের চেয়ে স্থগিত ভোট বেশি হওয়ায় সেখানে মেয়র পদে নাম ঘোষণার ক্ষেত্রে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে। এ কারণে সেখানে মেয়র পদে এখনও কারও নাম ঘোষণা হয়নি।

রাজশাহীতে মেয়র পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। তিনি প্রায় ৮৮ হাজার ভোটের ব্যবধানে হারিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে। সেখানকার ১৩৮টি কেন্দ্রের সবগুলোরই ফলাফলে লিটন পেয়েছেন ১ লাখ ৬৬ হাজার ৩৯৪ ভোট। বুলবুল পান ৭৮ হাজার ৪৪২ ভোট।

বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বেসরকারিভাবে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ নির্বাচিত হয়েছেন। সাদিক আবদুল্লাহ পেয়েছেন ১ লাখ ৯ হাজার ৮০১ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মজিবর রহমান সরওয়ার পেয়েছেন ১৩ হাজার ৪১ ভোট। এই হিসাবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ৯৬ হাজার ৭৬০ ভোটে জয়লাভ করেছেন।

বরিশালে মোট কেন্দ্র ১২৩টি। এর মধ্যে অনিয়মের অভিযোগে ১৫টি কেন্দ্রে ভোট স্থগিত হয়েছে এবং একটি কেন্দ্রে বাতিল হয়েছে।

সিলেটে বিএনপির প্রার্থী পেয়েছেন ৯০ হাজার ৪৯৬ ভোট, আর আওয়ামী লীগের প্রার্থী পেয়েছেন ৮৫ হাজার ৮৭০ ভোট। সেই হিসাবে বিএনপির প্রার্থী ৪ হাজার ৬২৬ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন। তবে সেখানে স্থগিত হওয়া দুই কেন্দ্রের ভোটসংখ্যা ৪ হাজার ৭৮৭। তাই সেই দুই কেন্দ্রের ভোট না হওয়া পর্যন্ত নতুন মেয়রের নাম ঘোষণার ক্ষেত্রে অপেক্ষা করতে হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *